বাংলাদেশ, , মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০

‘লয়ার মানে লায়ার’ কথাটা কি ঠিক?- মোঃ রাসেল সিদ্দিকী এডভোকেট

  প্রকাশ : ২০১৮-০৯-০৮ ০৫:৪৭:০৪  

সিবিএম নিউজ: ঢাকা

বাংলাদেশ লয়ার্স এন্ড ল স্টুডেন্টস এসোসিয়েশন বিএলএলএসএ এর চেয়ারম্যান এডভোকেট মো: রাসেল ছিদ্দিকী নিম্নোক্ত বিষয়টি সবার জ্ঞাতার্থে ব্যখ্যা করেছেন। যা পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল-

লয়ার মানে লায়ার’ কথাটা কি ঠিক?

কথাটা যাকেই জিজ্ঞাসা করা হয় সে তার perspective এ এর উত্তর দেয়। কেউ বলে লয়াররা মিথ্যা কথা বলে, কেউ বলে লয়াররা বেশি টাকা নেয়, কেউ কেউতো আবার বলে ফেলে লয়ার মানেই লায়ার। কথাটা কিছুটা ঠিক কারন আমাদের অবশ্যই স্বীকার করতে হবে কিছু কিছু লয়ার মিথ্যা কথা বলে। কিন্তু তার পরিমান এতো বেশি না যে আমরা বলতে পারি, ‘লয়ার মানেই লায়ার’। তাছাড়া এমন কোন profession কি আছে, যে profession এ মানুষ কম বেশি মিথ্যা কথা বলে না? so যে ‘লয়ার মানেই লায়ার’ বলে তাহলে সে যে profession এ আছে সেই professionকেও লায়ারদের profession বলতে হবে কারন সেখানেও মানুষ কমবেশি মিথ্যা কথা বলে।

এখন আসি অন্য সব profession এর মানুষ মিথ্যা বলা সত্তেও শুধু লয়ারদেরকেই কেন লায়ার বলে, অন্যদের কেনো বলে না। লয়ারদের কাজ হল আইন অনুযায়ী যুক্তিতর্ক করে তার client কে কিভাবে ন্যায্য বিচার দেওয়া যায় তা নিশ্চিত করা এবং এটা করতে গিয়ে একজন লয়ারকে সংশ্লিষ্ট judge কে convince করতে হয় যে, সে যা বলছে তা আইন অনুযায়ী সঠিক।

judge কে convince করতে তার law knowledge, তার মেধা এবং সর্বোপরি তার advocacy skill সব কিছু কাজে লাগাতে হয়। আর judge পক্ষের বিপক্ষের যুক্তি শুনে যার যুক্তি সঠিক এবং গ্রহনযোগ্য তার পক্ষে রায় দেয়। লয়ারদেরকে হতে হয় কথার জাদুকর, তাদেরকে অনেক সুন্দর করে গুছিয়ে কথা বলতে হয় আর এই জন্যই অনেকে মনে করে লয়াররা মিথ্যা বলে।

এখন আমার প্রশ্ন হোলো লয়াররা তাহলে মিথ্যাটা কখন বলে? অনেকে বলবে লয়াররা case win করার জন্য মিথ্যা বলে। তাদেরকে বলবো আপনারা ডাক্তারের কাছে গিয়ে যে রোগের ঔষধ চান, ডাক্তার তো সেই রোগেরই ঔষধ দেয়, নাকি অন্য কোনো রোগের ঔষধ দেয়? একইভাবে মানুষ লয়ারদের কাছে যা বলে একজন লয়ার সেটা বিশ্বাস করেই তার case লড়ে। এখন যদি client রা লয়ারদের কাছে মিথ্যা তথ্য দেয় তাহলে সেটা client দের দোষ কিন্তু তার জন্য কোনোভাবেই লয়ারদের দায়ী করা যায় না।

সবশেষে বলতে চাই ‘লয়ার মানে লায়ার’ কথাটা কোনোভাবেই ঠিক না এবং সাধারন মানুষের এ ভ্রান্ত ধারনা থেকে বের হয়ে আসা উচিত।।।

বিঃদ্রঃ এটা একান্তই আমার ব্যক্তিগত অভিমত।।।



ফেইসবুকে আমরা