বাংলাদেশ, , শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০

এনজিও মুক্তি’র নতুন সভাপতি এড. সুজিত, সম্পাদক বাবলা পাল- CBM News

  প্রকাশ : ২০১৯-০৮-৩১ ১৮:০৫:৩৮  

মুহাম্মদ আবু সিদ্দিক ওসমানী :

কক্সবাজারের স্থানীয় এনজিও মুক্তি’র নতুন সভাপতি হয়েছেন এডভোকেট সুজিত চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন বাবলা পাল।

শুক্রবার ৩০ আগষ্ট মুক্তি’র কক্সবাজার শহরের গোলদীঘির পাড়ের সারদা ভবনস্থ কার্যালয়ের সভা কক্ষে সংস্থাটির সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যপক জেবুন্নেছা বারী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সাধারণ সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। মুক্তির প্রধান নির্বাহী বিমল চন্দ্র দে সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বিমল চন্দ্র দে সরকারের সন্ঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত উক্ত সাধারণ সভায় বক্তব্য রাখেন সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান উপদেষ্টা অধ্যাপক সোমেশ্বর চক্রবর্তী, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য ও বর্তমান উপদেষ্টা এডভোকেট সুজিত চৌধুরী এবং উপদেষ্টা ও বিশিষ্ট সাংবাদিক সন্তোষ শর্মা, বিদায়ী সভাপতি এড. শিবুলাল দেবদাস, সহ-সাধারণ সম্পাদক বাবলা পাল, নির্বাহী সদস্য রতন দাশ, মন্দিরা পাল, মাসুদা মোর্শেদা আইভি, সাধারণ সদস্য স্বপন কান্তি পাল, সোহেল আহমদ বাহাদুর, অসিত কুমার পাল, হেলেনাজ তাহেরা, অধ্যাপক অজিত কুমার দাশ, রেহেনা ইয়াসমিন, সেলিনা আক্তার কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ) এর ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার দিলীপ পাল, যমুনা চৌধুরী, সংস্কৃতিজন বিপুল সেন, সাংবাদিক ও সংগঠক দীপক শর্মা দিপু, সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) এর কক্সবাজার জেলা সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক মাহাবুবুর রহমান, সাংবাদিক শফিউল আলম, সংস্থার চলমান বিভিন্ন প্রকল্পের সমন্বয়কারী ও কর্মকর্তাবৃন্দ। সভায় মুক্তির বার্ষিক প্রতিবেদন পেশ করেন পদত্যাগী সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রনজিত দাশ। সংস্থার প্রধান নির্বাহী বিমল চন্দ্র দে সরকার সভায় ২০১৮-২০১৯ অর্থ বছরের নিরীক্ষা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন।

বক্তব্য দেয়া শেষে সভার সভাপতি বর্তমান কার্যকরী পরিষদ বিলুপ্ত ঘোষনা করেন এবং নতুন কার্যকরী পরিষদ নির্বাচনের অনুরোধ জানান। সভায় উপস্থিত সাধারণ পরিষদের সদস্যবৃন্দ ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি সাবজেক্ট কমিটি গঠন করে তাদেরকে একটি নতুন কার্যকরী পরিষদ গঠন করার জন্য দায়িত্ব প্রদান করেন।

সাবজেক্ট কমিটির সদস্যরা ছিলেন- ১। অধ্যাপক সোমেশ্বর চক্রবর্তী ২। এডভোকেট সুজিত চৌধুরী ৩। সন্তোষ শর্মা। সাবজেক্ট কমিটি পৃথকভাবে বসে ১০ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কার্যকরী পরিষদের তালিকা তৈরী করে সাধারণ সভায় উপস্থাপন করেন।

সভায় সর্বসম্মত ভাবে আগামী ১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ হতে ৩১ আগস্ট ২০২০ পর্যন্ত মেয়াদের জন্য ১০ সদস্য বিশিষ্ট মুক্তির নতুন কার্যকরী পরিষদ গঠন করা হয়। কমিটির নব নির্বাচিত সভাপতি হলেন-এডভোকেট সুজিত চৌধুরী, সিনিয়র সহ-সভাপতি অধ্যাপক জেবুন্নেছা বারী , সাধারণ সম্পাদক বাবলা পাল, সহ-সাধারণ সম্পাদক রেহেনা ইয়াসমিন, সদস্য-বিমল কান্তি চৌধুরী, মাসুদা মোর্শদা আইভি, রতন দাশ, মন্দিরা পাল, ডাঃ মিজবাহ উদ্দিন আহমদ, অধ্যাপক অজিত কুমার দাশ।

প্রসঙ্গত, আন্তকোন্দলে জড়িয়ে সম্প্রতি বিদায়ী সভাপতি এডভোকেট শিবুলাল দেবদাশের বিরুদ্ধে পদত্যাগী সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রনজিত দাশ আদালতে এক কোটি টাকার মানহানি মামলা দায়ের করেন। এছাড়া এডভোকেট শিবুলাল দেবদাশ ও তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ ও ভারতের দ্বৈত নাগরিকত্বের অভিযোগ আনা হয়।

অন্যদিকে, রোহিঙ্গা শরনার্থীদের দেশীয় অস্ত্র সরবরাহ দেয়া সহ বিভিন্ন অভিযোগে কক্সবাজারের লোকাল এনজিও মুক্তি’র ৬ টি চলমান প্রকল্প বন্ধ করে দিয়েছে এনজিও ব্যুরো। এসব নিয়ে বেসরকারী সংস্থা মুক্তি কার্যক্রম গত মাসখানেক ধরে বেশ আলোচনা-সমালোচনায় রয়েছে।



ফেইসবুকে আমরা